স্বাগতম

মোদের গরব, মোদের আশা, আমরি বাংলা ভাষা |পৃথিবীর সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাভাষী মানুষের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাই!

সোমবার, ২৯ অক্টোবর, ২০১৮

থ্যালেটস কি এবং কেন (What is Phthalates)



থ্যালেটস কি ?

থ্যালেটস হল মানুষের দ্বারা সৃস্টি রাসায়নিক যৌগের একটি গোস্টি যা বিভিন্ন (CAS)  সি এ এস নম্বরের বিগলিত তরল থেকে পাওয়া যায়। (CAS হল রাসায়নিক পদার্থের সাংখ্যিক চিহ্নিতকরণ নাম্বার)
থ্যালেট একটি সিরাপের মত তরলের ঘনত্বযুক্ত বর্নহীন ও গন্ধহীন পদার্থ, এটি জলে কম দ্রাব্য, তেলে বেশি দ্রাব্য ও এর উদ্বায়িতা কম।  


একটি প্লাস্টিসাইজার হিসেবে তাদের কাজ হল সেই উপাদানের কর্মদক্ষতাকে পরিবর্তিত ক,রা যার সাথে তারা মিশ্রিত আছে।

থ্যালেট গুলো সহজেই পরিবেশে মুক্ত হতে পারে ।  কর্মী ও প্রোডাক্ট ব্যাবহারকারিদের কাছে হস্তান্তরিত হতে পারে কারন যৌগ গুলো ঠিক জায়গায় রাখার জন্য এর মধ্যে কোণ রাসায়নিক বন্ধনী নেই।

থ্যালেট যে কাজে ব্যাবহার হয় ?

প্লাস্টিক কে নরম করার জন্য , এর নমনীয়তা বাড়ানোর জন্য, চিড় খাওয়া আটকানোর জন্য ও ছাঁচে
ফেলার সুবিধা প্রদান করার জন্য সাধারনতঃ থ্যালেটগুলি প্লাস্টিকের সাথে যোগ করা হয়। স্ক্রীন প্রিন্ট, কোটিং ও হিট ট্রান্সফার লিঙ্ক গুলোর মধ্যেও থ্যালেট ব্যাবহার হতে পারে।

কি ধরনের উপাদানের মধ্যে থ্যালেট দেখতে পাওয়া যায় ?

·         প্লাটিসল প্রিন্টিং পেস্টগুলিতে।
·         নমনীয় প্লাস্টিক উপাদানগুলিতে , যেমন পিভিসি।
·         অ্যাডহেসিভ গুলিতে।
·         প্লাস্টিকের বোতামে ।
·         প্লাস্টিকের স্লিভ এ ।
·         বিভিন্ন কোটিং যেমন, পলি ইউরাথের কোটিং এ


থ্যালেটের প্রভাব কি কি ?

মানুষের স্বাস্থের উপড় থ্যালেট গুলির একটি নেতিবাচক প্রভাব রয়েছে।
এর মধ্যে কিছু জৈবক্রম সঞ্চয়কারী বৈশিস্ট আছে এবং জলজ উপাদানে বিষক্রিয়া ঘটাতে পারে।

থ্যালেটের বিকল্প কি ?

হ্যাঁ, থ্যালেট ফ্রী প্লাস্টিসাইজার আছে, প্লাস্টিকের এমন বিকল্প রয়েছে যাতে প্লাস্টিসাইজার ব্যাবহারের প্রয়োজন হয় না। থ্যালেট- বিহীন প্লাস্টিসল ( পিভিসি (PVC) যুক্ত তরল প্লাষ্টিসাইজার ) লিঙ্ক গুলোও আছে।

তথ্যসুত্রঃ প্রাইমার্ক

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 

দর্শক সংখ্যা

বিজ্ঞাপন

যোগাযোগ Amitptec6th@gmail.com

সতর্কবার্তা

বিনা অনুমতিতে টেক্সটাইল ম্যানিয়ার - কন্টেন্ট ব্যাবহার করা আইনগত অপরাধ,যেকোন ধরণের কপি পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে বিচারযোগ্য !