স্বাগতম

মোদের গরব, মোদের আশা, আমরি বাংলা ভাষা |পৃথিবীর সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাভাষী মানুষের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাই!

রবিবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৫

চীনের টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রির বর্তমান অবস্থা(Current Status of China Textile Industry)

চীনের টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রির বর্তমান অবস্থা(Current Status of China Textile Industry)


সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ চীন এবং বর্তমানে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি । ভারী থেকে মাঝারী এমন কোন শিল্প নেই যাতে চীনের সম্প্রক্ততা নেই । কমিউনিস্ট শাসনে চলা চীন প্রায় সকল ক্ষেত্রে ঈর্ষোনীয় সাফল্যের স্বাক্ষর রেখে চলছে  । দেশের অভ্যন্তরীণ সম্পদ,কৃষি ও বিশাল জনসংখ্যাকে কীভাবে কাজে লাগাতে হয় সে ব্যাপারে চীন একটি রোল মডেলের মত । যাহোক চীনের অনেক গুলো শিল্প খাতের মধ্যে অন্যতম একটি টেক্সটাইল । বহু বছর যাবত যেখানে চীন এক নম্বরে । 

শনিবার, ২৯ আগস্ট, ২০১৫

টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিকে নিয়ন্ত্রণ করা কয়েকটি চুক্তি(Some Influential Agreements on Textile Industry)

Graph of global textile area

ওয়ার্ল্ড ট্রেড অর্গানাইজেশন(World  Trade Organization) :
সুইজারল্যান্ডের রাজধানী জেনেভায় অবস্থিত ওয়ার্ল্ড ট্রেড অর্গানাইজেশন আন্তর্জাতিক বাণিজ্যকে নিয়ন্ত্রণ করে ।এর সদস্য দেশের সংখ্যা ১৬১  যারা বিশ্ব বাণিজ্যের ৯৬.৪ % এর প্রতিনিধিত্ব করে। এ প্রতিষ্ঠানের প্রধান লক্ষ্য আন্তর্জাতিক স্তরের ব্যাবসায়  ইতিবাচক স্বাধীনতা নিয়ে আসা । বিভিন্ন নিয়মনীতি প্রনয়ণ করা,সঠিক শ্রমের মূল্য নিশ্চিত করা,সদস্য দেশের মধ্যে  সমস্যার সমাধান এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাণিজ্য বিষয়ক একটি বিতর্কের প্লাটফর্ম রুপে কাজ করা । 

বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০১৫

পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীন ৫ টি ভাষা(Top 5 Ancient Languages)

পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীন ৫ টি ভাষা(Top 5 Ancient Languages)

বর্তমানে পৃথিবীতে প্রায় ৬০০০ এর মত ভাষা রয়েছে ।কিছু কিছু ভাষা বহু প্রাচীন কাল আগে থেকে চলে আসছে । এসমস্ত ভাষার উৎপত্তি কাল সম্পর্কে সঠিক তথ্য পাওয়া তথা ভাষার বয়স নির্ধারণ করা একটি বিতর্কের বিষয় । এজন্য বিস্তারিত  গবেষণার প্রয়োজন ,আদি নিদর্শন খুঁজে বের করতে হয় । তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে সিদ্ধান্তে পৌছাতে হয় । যেটা অত্যন্ত কঠিন কাজ ।  গবেষণার ভিত্তিতে পৃথিবীর সবচেয়ে প্রাচীন ৫ টি ভাষাকে নির্ধারণ করা হয়েছে। দেখা যাক...

জিন্স প্যান্টের ইতিহাস কথন(The History About Jeans)

জিন্স প্যান্টের ইতিহাস কথন

সর্বপ্রথম জিন্স এর ব্যাবহার শুরু হয়েছিল ইংল্যান্ডে। তবে এর নামকরণ হয় ইটালিতে । জিন্স শব্দটি এসেছে ফ্রেন্স শব্দ জিন ফুস্তিয়ান থেকে,জিন ফুস্তিয়ান ছিল তুলা থেকে তৈরি একটি টূয়াইল ফেব্রিক যার উৎপত্তিস্থল ইটালির, জেনয়া শহর। জেনোয়া শহরের নাবিকদের পরনে এই জিস ফুস্তিয়ানের প্যান্ট থাকত। এভাবেই নামটি সংক্ষিপ্ত হয়ে  বহুবচন জিন্স নামে অগ্রসর হয় । জিন্স আমরা সবাই পরি কিন্তু এর পেছনের ইতিহাস আমরা জানি না । কিভাবে কখন এই জিন্সের উৎপত্তি, কিভাবে এতো জনপ্রিয়তা পেল ?

বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৫

বাংলাদেশের "তৈরি পোশাক শিল্পে"র কিছু ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটঃ-২ (Some Historical Background About Bangladesh RMG-02)

বাংলাদেশের "তৈরি পোশাক শিল্পে"র কিছু ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পের কিছু ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটঃ-১ (Some Historical Background About Bangladesh RMG-01)    ...... এর পরে

১৯৯৫ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত ওয়ার্ল্ড ট্রেড অর্গানাইজেশনের টেক্সটাইল এ্যান্ড ক্লথিং এগ্রিমেন্ট(ATC) চুক্তি  বাংলাদেশকে আমেরিকা,কানাডা ও ইউরোপিয়ান দেশের বাজার ধরতে  আরও সহায়তা করে


রপ্তানি বাজার
ইউ এস এ (টেক্সটাইল)
ইউ এসএ
(ক্লথিং)
ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে(টেক্সটাইল)
ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে(ক্লথিং)
১৯৯৫ সালে




বাংলাদেশের শেয়ার
>৩%
৪%
<৩%
৩%





২০০৪ সালে




বাংলাদেশের শেয়ার
৩%
২%
৩%
        ৪%

বাংলাদেশের "তৈরি পোশাক শিল্পে"র কিছু ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটঃ-১ (Some Historical Background About Bangladesh RMG-01)

বাংলাদেশের "তৈরি পোশাক শিল্পে"র কিছু ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট

যদিও বাংলাদেশের অর্থনীতি  কৃষি নির্ভর কিন্তু একে ব্যাপক ভাবে  বৈদেশিক মুদ্রার উপড় নির্ভর করতে হয় । বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের সবচেয়ে বড় ক্ষেত্র তৈরি পোশাক শিল্প । ১৯৮০  সালের পর থেকে এই শিল্পে প্রশংসনীয় প্রবৃদ্ধি চলমান রয়েছে১৯৮০ সালে বাংলাদেশে মাত্র ৫০ টি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি ছিল এখন এ সংখ্যা  ৪৪৯০  । যার ৯৫ শতাংশের মালিক বাংলাদেশি, বাকী ৫ শতাংশ চলে বৈদেশিক বিনিয়োগে বর্তমানে জাতীয় বৈদেশিক মুদ্রা অর্থনীতির ৮১ শতাংশের যোগানদাতা এবং  জিডিপির  

শনিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৫

পোশাকের গায়ে লেগে থাকা চিহ্ন গুলো কি অর্থ বহন করে(Meanings of Symbols on Garments)


পোশাকের গায়ে লেগে থাকা চিহ্ন গুলো


পোশাক ব্যাবহার করলে নোংরা হবে এটাই স্বাভাবিক । নোংরা পোশাককে পরিষ্কার করে,শুকিয়ে , আয়রন করে তাকে পুনরায় ব্যাবহারের পর্যায়ে নিয়ে আসা হয় । বেশীরভাগ গার্মেন্টস পোশাকের কলার স্ট্যান্ডের নিচে লেবেল থাকে সেখানে বিভিন্নরকম সংকেত থাকে যা সচারচার সবার চোখে এড়ায় কিংবা অর্থ না বুঝতে পাড়ার দরুন গুরুত্ব দিয়ে দেখা হয় না  । কিন্তু ঐ প্রত্যেকটি সংকেত ভিন্ন ভিন্ন তাৎপর্যের অর্থ বহন করে , কিছু নিয়মাবলীকে নির্দেশ করে কিভাবে পোশাকটির যত্ন নিতে হবে । এই সংকেতগুলোকে কেয়ার লেবেল কোড বলা হয় । আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত এমন কয়েকটি কেয়ার লেবেল কোড  সম্বন্ধে আজকে জানব ।

একটি সম্পূর্ণ কস্টিং শিটের বর্ণনা(Complete Description of A Costing Sheet )

গার্মেন্টস কস্টিং শিটেের বর্ণনা

গার্মেন্টস প্রোডাকশনের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ কস্টিং।  প্রোডাকশনের ও বিক্রয়ের ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় কত টাকা খরচ হয় তার পুঙ্খানুপুঙ্খা হিসাবের মাধ্যমেই কোন পোশাকের কস্টিং শিট বের করা হয়।
ধরা যাক কোন টি-শার্টের মূল্য নির্ধারণ করা হল ১১৮ টাকা ।কিন্তু কিভাবে মূল্য ১১৮ টাকায় পৌছাল ?

আসুন দেখে নেয়া যাক একটি টি-শার্টের প্রাইজ ট্যাগ ১১৮ টাকার পিছনে থাকা বিষয়গুলোর পুঙ্খানুপুঙ্খ বর্ণনা

শুক্রবার, ২১ আগস্ট, ২০১৫

আধুনিক টেইলারিং এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়(Some Important Factor In Modern Tailoring)

আধুনিক টেইলারিং এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়(Some Important Factor In Modern Tailoring)

সাধারণভাবেই পোশাক নির্মাতা প্রতিষ্ঠান যখন কোন পোশাক তৈরির মডেল পরিকল্পনা করেন তখন তারা পোশাকটিকে যতটা সম্ভব সুন্দর ও আরামদায়ক ভাবে তৈরি করার চেষ্টা করেকারণ কোন পোশাক তখনই মানুষের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে পৌছায় যখন তার মধ্যে উল্লেখিত দুটি গুণাবলীই বিদ্যমান থাকে । পোশাকের সৌন্দর্য নির্ভর করে ভাল নকশার উপড় অন্যদিকে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে দেহের বিভিন্ন অংশের প্রসারণকালে  পোশাকের তাতে তাল মেলানোর ক্ষমতার উপড় নির্ভর করে পোশাকের আরামদায়ক গুন । এজন্য যেকোন পোশাক তৈরির সময় দেহের ভিন্ন ভিন্ন গতিময় অবস্থায় পর্যালোচনা করতে হয়গবেষণায় উঠে এসেছে এমন কিছু বিষয় যেগুলো চামড়ার বিভিন্ন প্রসারণের সময়ে অনুকুল ভুমিকা রাখে

বুধবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৫

সর্বাধুনিক প্রযুক্তির হালকা বুলেট প্রুফ জ্যাকেট (Modenize Bullet Proof Jacket)


কার্বন ,বোরনের বিক্রিয়ায় সৃষ্ট বোরন কার্বাইড কে তুলার সাথে মিশিয়ে বিজ্ঞানীরা একটি  প্রচণ্ড  শক্ত ফেব্রিক তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন যা বন্দুকের গুলি প্রতিরোধ করতে পারে । যা কিনা পূর্বে নির্মিত বুলেট প্রুভ ক্যালভার জ্যাকেটের তুলনায় অনেক বেশি হালকা ও আরামদায়ক । 

রবিবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৫

টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের হতাশার নাম “জব এগ্রিমেন্ট পলিসি” (An Unhealthy Agreement Policy for Textile Engineers)

টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের হতাশার নাম “জব এগ্রিমেন্ট পলিসি”


রপ্তানির দিক দিয়ে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে। পুরো বাংলাদেশে প্রায় চল্লিশ হাজারের মত গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি রয়েছে যেগুলো এদেশের ৩৫ থেকে ৪০ লাখ মানুষের কর্মক্ষেত্র  । ২০১৪ সালে এ খাতে বাংলাদেশের রপ্তানি আয় ছিল প্রায় ১ লক্ষ ৮৪ হাজার কোটি টাকা । বর্তমান গতিতে প্রবৃদ্ধি বজায় থাকলে আগামী ২০২১ সালের মধ্যে এ রপ্তানি আয়ের পরিমাণ দাঁড়াবে ৩ লক্ষ ৮০ হাজার কোটি টাকা । এতএব  টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা স্বাভাবিক ভাবেই বেড়ে চলবে ।

বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০১৫

তাপীয় সংবেদনশীল পোশাক তৈরির মূলনীতি(Principles of Making Thermal Sensitive Cloth)

তাপীয় সংবেদনশীল পোশাক তৈরির মূলনীতি(Principles of Making Thermal Sensitive Cloth)

মানব দেহের উপড় পারিপার্শ্বিক আবহাওয়ার তাপমাত্রার ও বায়ুর তাপীয় অবস্থার বিস্তর প্রভাব বিরাজমান। প্রতিকূল পরিবেশে জীবনধারণের জন্য পোশাক নির্মাণ করতে মানব দেহের তাপীয় ধারনক্ষমতা এবং ঠান্ডা ও গরম বায়ুর গতিবেগ সম্পর্কে বিস্তারিত তত্থ্য প্রয়োজন । এ সম্পর্কে অ্যামেরিকান আর্মি রিসার্স ইন্সটিটিউট অফ ইনভাইরন্টমেন্ট মেডিসিন পরিচালিত গবেষণায় উঠে আসা তথ্যাদির ভিত্তিতে কিভাবে আরও উন্নত ধরনের তাপসহনীয় বস্ত্র তৈরি করা যেতে পারে তা নিয়ে আলোকপাত করা হল ।

সোমবার, ১০ আগস্ট, ২০১৫

পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ এবং কিছু কথা (Pabna Textile Engineering College & Some Discussion)


বাংলাদেশ তথা সমগ্র ভারতীয় উপমহাদেশের মধ্যে টেক্সটাইল শিক্ষার জন্য একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ  দীর্ঘ একশ বছরের আয়ুতে এই প্রতিষ্ঠান বহু শিক্ষানবিশের জ্ঞানের চাহিদা পুরন করে আসছে ।  ১৯১৫ সালে ব্রিটিশ ভারতে  পাবনা সরকারি উইভিং বা বুনন  স্কুল নামে সে যাত্রার সূচনা হয়েছিল । ১৯২৬ সালে বাংলার তৎকালীন ব্রিটিশ গভর্নর লর্ড কার্মাইক্যাল প্রতিষ্ঠানটি পরিদর্শন করেন এবং

রবিবার, ২ আগস্ট, ২০১৫

গার্মেন্টস শিল্পকে কেন বাইং হাউজের উপড় নির্ভর করতে হয় (The Relation or Necessity Between Garments Industry & Buying House)

গার্মেন্টস শিল্পকে কেন বাইং হাউজের উপড় নির্ভর করতে হয় (The Relation or Necessity Between Garments Industry & Buying House)
গার্মেন্টস শিল্প এ বং বাইং হাউজের মধ্যে সম্পর্ক

সুচারু ম্যানেজমেন্টের গুরুত্ব সবখানে তা প্রোডাকশনই হোক ,কিংবা সেলস ডিপার্টমেন্ট বা মার্কেটিং ।বর্তমানে মার্কেটিং ডিপার্টমেন্টের উপড় ম্যানেজমেন্টের গুরুত্ব সর্বাধিক । মার্কেট কনসেপ্ট একটি দর্শনের মত যাকে ঠিকঠাক ভাবে কখনই সংজ্ঞায়িত করা যায় না । প্রকৃত অর্থে এটি আসলে একটা আচরণ বা মতামতের সমষ্টি যেটা সম্পূর্ণ ম্যানেজমেন্ট প্রক্রিয়াকে কে নিয়ন্ত্রণে রাখে 

বর্তমানের বাংলাদেশের রপ্তানি খাতের  সিংহভাগ আয় আসছে আর এম জি বা রেডি মেইড গার্মেন্টস শিল্প থেকে 

 

দর্শক সংখ্যা

বিজ্ঞাপন

যোগাযোগ Amitptec6th@gmail.com

সতর্কবার্তা

বিনা অনুমতিতে টেক্সটাইল ম্যানিয়ার - কন্টেন্ট ব্যাবহার করা আইনগত অপরাধ,যেকোন ধরণের কপি পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে বিচারযোগ্য !